Archive

Posts Tagged ‘নির্মলেন্দু’

ভালোবাসা হারাবার জিনিস নয় – -নির্মলেন্দু গুন

ভালোবাসা হারাবার জিনিস নয়

ভালোবাসা হারাবার জিনিস নয়।
ভালোবাসা হচ্ছে পাত্র থেকে উড়ে যাওয়া কর্পুরের মতো,
সে মিশে যায় হাওয়ার মধ্যে, শূন্যে, নীলকাশে ।
ভালোবাসা শিশির বিন্দুর মতো মিশে থাকে ঘাসের ডগায়।
জলের জন্য আছে সমুদ্র, বাষ্পের জন্য আছে আকাশ;
… ভালোবাসার পৃথক পৃথিবী আছে, আছে আলাদা জগৎ–,
সেখানে প্রতিটি ভালোবাসা জমা হয়, জড় হয়,
মৃত মানুষের আত্মা যেরকম, রুহু যেরকম ।

মানুষ -নির্মলেন্দু গুন

মানুষ
-নির্মলেন্দু গুন
আমি হয়তো মানুষ নই, মানুষগুলো অন্যরকম,
হাঁটতে পারে, বসতে পারে, এ-ঘর থেকে ও-ঘরে যায়,
মানুষগুলো অন্যরকম, সাপে কাটলে দৌড়ে পালায়।
আমি হয়তো মানুষ নই, সারাটা দিন দাঁড়িয়ে থাকি,
গাছের মত দাঁড়িয়ে থাকি।
সাপে কাটলে টের পাই না, সিনেমা দেখে গান গাই না,
অনেকদিন বরফমাখা জল খাই না।
কী করে তাও বেঁচে আছি আমার মতো। অবাক লাগে।
আমি হয়তো মানুষ নই, মানুষ হলে জুতো থাকতো।
বাড়ি থাকতো, ঘর থাকতো,
রাত্রিবেলায় ঘরের মধ্যে নারী থাকতো,
পেটের পটে আমার কালো শিশু আঁকতো।
আমি হয়ত মানুষ নই,
মানুষ হলে আকাশ দেখে হাসবো কেন?
মানুষগুলো অন্যরকম, হাত থাকবে,
নাক থাকবে, তোমার মতো চোখ থাকবে,
নিকেলমাখা কী সুন্দর চোখ থাকবে।
মানুষ হলে উরুর মধ্যে দাগ থাকতো,
চোখের মধ্যে অভিমানের রাগ থাকতো,
বাবা থাকতো, বোন থাকতো,
ভালবাসার লোক থাকতো,
হঠাৎ করে মরে যাবার ভয় থাকতো।
আমি হয়তো মানুষ নই,
মানুষ হলে তোমাকে নিয়ে কবিতা লেখা
আর হতো না, তোমাকে ছাড়া সারাটা রাত
বেঁচে-থাকাটা আর হতো না।
মানুষগুলো সাপে কাটলে দৌড়ে পালায়;
অথচ আমি সাপ দেখলে এগিয়ে যাই,
অবহেলায় মানুষ ভেবে জাপটে ধরি।